রাত ১০:০৮ l সোমবার l ২৩শে ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ l ৮ই মার্চ, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ l ২৪শে রজব, ১৪৪২ হিজরি l বসন্তকাল
জাতিসংঘ আন্ত:রাষ্ট্রীয় সাংবাদিক সংগঠনে সদস্য হলেন তাড়াশ উপজেলার মিঠুন মোস্তাফিজ

জাতিসংঘ আন্ত:রাষ্ট্রীয় সাংবাদিক সংগঠনে সদস্য হলেন তাড়াশ উপজেলার মিঠুন মোস্তাফিজ

লিটন আহমেদ নিজেস্ব প্রতিবেদক দৈনিক বাংলাদেশে সংবাদঃ সিরাজগঞ্জ জেলার তাড়াশ উপজেলার এক অজপাড়া গাঁয়ের ড. মিঠুন মোস্তাফিজকে,

জাতিসংঘ আন্ত:রাষ্ট্রীয় সাংবাদিক সংগঠন-ইউএনজেআইজিও’র সদস্য হলেন । শুক্রবার ইউনাইটেড নেশনস জার্নালিস্ট ইন্টার গভর্মেন্টাল ওর্গানাইজেশন- ইউএনজেআইজিও- এর প্রেসিডেন্টের এখতিয়ার বলে ড. জাসবির সিং তাকে সদস্যপদ প্রদান করেন। জাতিসংঘ ভিত্তিক আন্ত:রাষ্ট্রীয় এই প্রতিষ্ঠানটি সাংবাদিকদের মধ্যে পেশাগত সহযোগিতা বৃদ্ধি, বস্তুনিষ্ঠ ও জনগুরুত্বপূর্ণ সংবাদ পরিবেশনে উৎসাহ প্রদান এবং সাংবাদিকেদর পেশাগত নিরাপত্তা ও সুরক্ষা নিয়ে কাজ করে।

বিশ্বের বিভিন্ন গণমাধ্যমের শীর্ষ কর্মকর্তাদের নিয়ে গঠিত ইউএনজেআইজিও। মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ট ট্রাম্পের পরামর্শক বোর্ড সদস্য ড. জসবির সিং সংস্থাটির সভাপতির দায়িত্ব পালন করছেন। ইন্টারনেট ভিত্তিক নিউ মিডিয়ার যুগে ‘ফেইক নিউজ’ বা ভূয়া সংবাদ প্রবাহ এবং ‘গুজব’- জনিত তথ্য জটিলতার বিরুদ্ধে সচেতনতা তৈরি, জ্ঞান বিনিময়, সাংবাদিকতায় নীতি- নৈতিকতার চর্চা এবং সাংবাদিকতা ও তথ্য সেবার মাধ্যমে বিশ্ব সমাজে ইতিবাচক পরিবর্তন আনয়নকারী সাংবাদিকদের স্বীকৃতি দিতে কাজ করছে সংস্থাটি। বাংলাদেশ থেকে ড. মোস্তাফিজই প্রথম মর্যাদাপূর্ণ বৈশ্বিক এই সংস্থার সদস্যপদ লাভ করলেন।

গেল মাসে সামাজিক উন্নয়ন বিষয়ক আন্তর্জাতিক জোট- আইসিএসডি’র নির্বাচনে ভাইস-প্রেসিডেন্ট পদে বিজয়ী হন ড. মোস্তাফিজ। এর আগে তিনি সামাজিক উন্নয়ন বিষয়ক আন্তর্জাতিক এই থিঙ্কট্যাঙ্ক প্রতিষ্ঠানটির ডিজিটাল মিডিয়া এডভাইজার ছিলেন। ড. মিঠুন মোস্তাফিজ নোবেল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি- এনআইইউ (ইউএস)- এর ভিজিটিং প্রফেসর এবং এমনেস্টি ইন্টারন্যাশনালের সদস্য। ড. মিঠুন মোস্তাফিজ দৈনিক বাংলাদেশ সময় পত্রিকার সম্পাদক। এর আগে তিনি বৈশাখী টেলিভিশনের কনসালট্যান্ট নিউজ, এসাইনমেন্ট এডিটর এবং জেষ্ঠ্য সংবাদ উপস্থাপক ছিলেন। নিউজ ব্রডকাস্টার্স এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ- এনবিএ’রও প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি তিনি।

অনুসন্ধান করুন

পুরাতন নিউজ দেখুন

© All rights reserved © 2017 dailybsbd.com

Desing & Developed BY লিমন কবির